ঢাকা   ১৯শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ । ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিঙ্গেল লাইফে চিন্তা নেই, ঝামেলা নেই : মোনালিসা

প্রতিবেদকের নাম
  • প্রকাশিত : রবিবার, জুন ২৩, ২০২৪
  • 31 শেয়ার

বিনোদন ডেস্ক
এক সময়ের ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী ও মডেল মোজেজা আশরাফ মোনালিসা। দীর্ঘদিন ধরেই পর্দার আড়ালে আছেন তিনি। এর মধ্যে বেশিরভাগ সময় কাটিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রে। তবে দীর্ঘদিন পরে দেশে ফিরলেও নিজের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে বারবার প্রশ্নের মুখোমুখি হচ্ছেন তিনি।

এর আগে গণমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী জানান, মনের মতো কাউকে পেলেই বিয়ে করবেন তিনি। সম্প্রতি ঈদ বিশেষ একটি টেলিভিশন অনুষ্ঠানে আবারও প্রসঙ্গ ওঠে অভিনেত্রীর ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে। আলোচনা হয় মোনালিসার একাকী জীবন কাটানোর অনুভূতি নিয়ে। সেখানে অভিনেত্রীও উত্তর দিয়েছেন কোনো দ্বিধা ছাড়াই।

মোনালিসার কথায়, ‘সিঙ্গেল লাইফ ইজ রিয়েলি গুড। কোনো চিন্তা নেই, ঝামেলা নেই, পিছুটান নেই। নিজেকে নিয়েই ব্যস্ত থাকা যায়, খারাপ লাগছে না। এখন ডাবল হতে গেলে অনেক কিছু চিন্তাভাবনা, অনেক কিছু ব্যাপার আছে।’

দাম্পত্য জীবনের অভিজ্ঞতার কথাও দর্শকদের জানিয়েছেন মোনালিসা। অভিনেত্রী বলেন, ‘যেহেতু পারিবারিকভাবে বিয়েটা ছিল, হয়তোবা আমাদের বোঝাপড়ার অনেক গ্যাপ ছিল। তবে অনেক কিছু আছে, যা আমি বলতে চাই না।’

বিয়ে কবে করছেন এ প্রসঙ্গে মোনালিসা বলেন, ‘আসলে আমি ভেবেছি, এই পুরো দায়িত্বটা দর্শকদের ওপর ছেড়ে দেব। তারাই সবকিছু নির্ধারণ করবে, এটাই ভালো হবে।’

এবার দেশে এসে মোনালিসা বেশ উপভোগ করছেন বলে গল্পে গল্পে জানান। আমেরিকার মুলুকে থাকতে বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা, ঘোরাঘুরি খুব মিস করেন তিনি। বলেন, ‘রাস্তার ধারে চটপটি, ফুচকা, আচার এগুলো, যা যা আমার ছোটবেলার স্মৃতি, এগুলোও আমি মিস করি।’

পর্দায় ফেরা নিয়ে ব্যস্ততার কথাও জানালেন অভিনেত্রী। তার কথায়, ‘দর্শকদের জন্যও ব্যস্ত হয়ে গেছি, অনেকগুলো পরিকল্পনা চলছে, দেখি কী হয়, দর্শকদের জন্য আছে চমক।’

প্রসঙ্গত, বিয়ের পর ২০১৩ সালে স্বামীর সঙ্গে নিউইয়র্ক চলে যান মোনালিসা। সেখানে গিয়ে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক বাংলা চ্যানেল টাইম টিভির প্রোগ্রাম প্রধান হিসেবে কাজ করেন।

বিয়ের পর স্বামীকে নিয়ে দেশ ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রে থিতু হলেও মোনালিসার সেই সংসার সুখের হয়নি। মাত্র বছরখানেকের মাথায় আলাদা হয়ে যান এই দম্পতি। এরপর আর নতুন করে সংসার বাঁধেননি মোনালিসা। বিগত বছরগুলোতে যুক্তরাষ্ট্রেই বেশি সময় কাটিয়েছেন তিনি। এর মাঝে সময় সুযোগ হলে কখনো এসে থেকে গেছেন বাংলাদেশে।

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ
© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০