ঢাকা   ২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ । ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মতিঝিলে অবৈধ পার্কিং ও হকারমুক্ত করতে অভিযান

প্রতিবেদকের নাম
  • প্রকাশিত : বুধবার, এপ্রিল ৩, ২০২৪
  • 122 শেয়ার

বিজনেস ফাইল প্রতিবেদক
রাজধানীর ব্যস্ততম বাণিজ্যিক এলাকা দৈনিক বাংলা থেকে শাপলা চত্বর। প্রচন্ড ব্যস্ততম এ এলাকার রাস্তায় অবৈধ পার্কিং, ফুটপাত দখল ও হকারমুক্ত করতে অভিযান চালিয়েছে ডিএমপির ট্রাফিক মতিঝিল বিভাগ। উপ পুলিশ কমিশনার (অতিরিক্ত ডিআইজি পদে পদোন্নতিপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ মইনুল হাসান পিপিএমের নেতৃত্বে এ অভিযান চালানো হয়।
মঙ্গলবার (২ এপ্রিল) দুপুরে প্রচন্ড রৌদ্রের মধ্যে তিনি তার অধীনস্ত এসি ট্রাফিক মতিঝিল, তিনজন ট্রাফিক ইন্সপেক্টর ও সার্জেন্টদের নিয়ে হেঁটে হেঁটে উল্টো পথে আসা রিকশা রাস্তায় বিক্ষিপ্তভাবে বসা হকার, অবৈধ পার্কিং প্রভৃতির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করেন। এ সময় মিড আইল্যান্ডের পাশে রাখা অবৈধ গাড়ি পার্কিংয়ের বিরুদ্ধেও আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।
সরেজমিনে যায়, অভিযানকালে দৈনিক বাংলা এলাকা থেকে মতিঝিল শাপলা চত্বর পর্যন্ত অবৈধভাবে পার্কিং করা বেশকিছু গাড়ির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়। উল্টেপথে আসা রিকশাকে ফিরিয়ে দেয়া হচ্ছে এবং অবৈধভাবে দখল ফুটপাত খালি করা হয়। পিক আওয়ারে ট্রাফিক মতিঝিল বিভাগের তদারকি কার্যক্রম শেষ করে মতিঝিল বিভাগের মেট্রোরেলের নিচে অংশের সড়কের শৃঙ্খলা ভঙ্গকারীদের আইন মানাতে ডিসি মোহাম্মদ মইনুল হাসান নিজেই নেমে পড়েন রাস্তায়। এ সময় রাস্তায় চলাচলকারী জনসাধারণ ট্রাফিক মতিঝিল বিভাগের এহেন কার্যক্রম দেখে অভিভূত হন। ডিসি ট্রাফিক মতিঝিলকে এ সময় উল্টো পথে আসা রিকশা চালকদের ব্রিফ করতেও দেখা গেছে।


মোহাম্মদ মইনুল হাসান বলেন, ঈদকে সামনে রেখে এবং পবিত্র রমজানে সড়ক যানজটমুক্ত রাখতে নির্দেশনা দেন ডিএমপি কমিশনার মো. হাবিবুর রহমান, বিপিএম (বার), পিপিএম (বার)। মূলত কমিশনার স্যারের নির্দেশেই অভিযান শুরু হয়। তিনি বলেন, ট্রাফিক মতিঝিল বিভাগের এ অভিযান নিয়মিত অব্যাহত থাকবে। কোনোভাবেই ফুটপাত দখল করা যাবে না। ট্রাফিক মতিঝিল বিভাগকে যানজটমুক্ত করাই হলো এ মুহূর্তে আমাদের একমাত্র লক্ষ্য। আমাদের নির্দেশনা কেউ মানতে না চাইলে সাথে সাথেই অ্যাকশন নেয়া হবে। যানজট সৃষ্টি করে এ ধরনের কোনো প্রকার গাড়িই অবৈধভাবে কোথাও রাখা যাবে না।
তিনি বলেন, আসলে জনসাধারণের সহযোগিতা ছাড়া যানজনমুক্ত নগরী পুলিশের একার পক্ষে সম্ভব নয়। ট্রাফিক নিয়ম মেনে গাড়ি মালিক, ড্রাইভার, পথচারীসহ সর্বসাধারণের সচেতনতামূলক সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন ডিসি মইনুল হাসান।


পরবর্তীতে দুপুর সাড়ে ১২টায় ঘটিকায় ডিসি ট্রাফিক মতিঝিল চলে যান ব্যস্ততম ফকিরাপুল ক্রসিংয়ে। একটি আদর্শ ক্রসিং ব্যবস্থাপনা কিভাবে করা সমীচীন তা নিজে তিনি মিডল্যান্ডের অগ্রভাগের উপরি অংশে দাঁড়িয়ে সেখানকার ট্রাফিক ইন্সপেক্টর ও সার্জেন্টকে সরেজমিনে ট্রাফিক পরিস্থিত দেখান।
মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে ডিসি মইনুল হাসান জানান, নানা ধরনের সীমাবদ্ধতা ও সড়কে বিদ্যমান নিদারুন কঠোর বাস্তবতা অতিক্রম করে সড়কে শৃঙ্খলা আনায়ন ও সম্মানিত নগরবাসীকে স্বস্তি প্রদানে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কর্নধার কমিশনার স্যারের দিক নির্দেশনা মোতাবেক ট্রাফিক মতিঝিল বিভাগের প্রত্যেকটি সদস্য বদ্ধ পরিকর এবং দিনরাত অহর্নিশ পরিশ্রম করে যাচ্ছে।

 

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ
© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০