ঢাকা   ২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ । ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাজিতপুরে আবেগঘন পরিবেশে কৃষিবিদ ইসরাফিল জাহানকে বিদায়ী সংবর্ধনা

প্রতিবেদকের নাম
  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২৫, ২০২৪
  • 45 শেয়ার

মোহাম্মদ খলিলুর রহমান
কিশোরগঞ্জের আটটি স্থানে ফুলেল শুভেচ্ছা ও অশ্রুসিক্ত নয়নে আবেগঘন পরিবেশের মধ্যে দিয়ে বিদায় নিলেন বাজিতপুর উপজেলার কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা কৃষিবিদ মো. ইসরাফিল জাহান ।
৩৮ তম বিসিএস (কৃষি) ক্যাডারে নিয়োগপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বাজিতপুরে ৩ বছর ২ মাস সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেন । মো. ইসরাফিল জাহান ৪১ তম বিসিএস দিয়ে (প্রশাসন) ক্যাডার সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের কার্যালয় নিয়োগপ্রাপ্ত হন ।

২৫ এপ্রিল বৃহস্পতিবার উপজেলা প্রশাসন বাজিতপুর অফিসার্স ক্লাবে ইসরাফিল জাহানের বিদায় সংর্বধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শামীম হুসাইনের সভাপতিত্বে বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বাজিতপুর উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা উপস্থিত থেকে আবেগঘন বক্তব্য শেষে ফুলের শুভেচ্ছা ও ক্রেষ্ট প্রদান করেন ।
এর আগে ২১ এপ্রিল কিশোরগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, খামারবাড়ি থেকে আনুষ্ঠানিক বিদায় দেন জেলার কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক আব্দুস সাত্তার ।
গত ২২ এপ্রিল উত্তর পিরিজপুর ব্লকের উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা বজলুর রহমান ও পিরিজপুর ইউনিয়নের কৃষক মাঠ স্কুলের কৃষক কৃষানী মো. ইসরাফিল জাহানকে ফুল ও ক্রেষ্ট দিয়ে বিদায় সংর্বধনা দেন । এই সময় অনেকে কৃষিবিদের স্মৃতিচারণ করে কেঁদে ফেলেন।
গত ২৩ এপ্রিল সরারচর ইউপি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান স্বপন ও সরারচর ইউনিয়নে কৃষকদের পক্ষ থেকে কৃষিবিদ মো. ইসরাফিল জাহানকে বিদায় সংবর্ধনা শেষে ক্রেষ্ট ও উপহার সামগ্রী তুলে দেন।

গত ২৪ এপ্রিল উপজেলা কৃষি অফিসের আয়োজনে বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তব্যে উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তারা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মো. ইসরাফিল জাহানের জীবনের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে আবেগে আপ্লুত হয়ে কেঁদে ফেলেন ।

উপ-সহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা মো. মোস্তাফিজুর রহমান কৃষিবিদ মো. ইসরাফিল জাহানের দীর্ঘ সাড়ে ৩ বছরের চাকুরি স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন ।

তিনি অত্যন্ত ভালো মনের একজন মানুষ ছিলেন। বন্ধুসুলভ আচরণ করতেন সবার সাথে। সারা উপজেলা ঘুরে সকল কৃষকদের সমস্যা নিজে দেখতেন।অতি দ্রুত সময়ে সমস্যা গুলোর সমাধান করতেন। যার ফলে বাজিতপুর উপজেলায় কৃষি খাতে এক বৈপ্লবিক পরিবর্তন আসে উনার মাধ্যমে ।

কৃষিবিদ মো. ইসরাফিল জাহান তার বক্তব্যে বলেন, সবাই স্বপ্ন থাকে বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডাডে নিয়োগপ্রাপ্ত হওয়া । ৪০ তম বিসিএস দিয়ে উত্তিন হতে পারিনি, ৪১ তম বিসিএস দিয়ে (প্রশাসন) ক্যাডার পদে সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের কার্যালয় নিয়োগপ্রাপ্ত হয় । আমি যেহেতু ময়মনসিংহ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র, চাকরি শুরু করি কৃষি অফিসে তাই কৃষি কেন্দ্রিক চিন্তা থাকবে সব সময় আমার মাঝে । সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন আমি যেন সততা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করতে পারি ।

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ
© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০