ঢাকা   ২৪শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ । ১০ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম :
এবার সোনালী ব্যাংকের পদও হারাচ্ছেন ছাগলকাণ্ডের মতিউর এনবিআরের পদ থেকে সরানো হলো মতিউরকে আওয়ামী লীগের গৌরবের ৭৫ বছর: বঙ্গবন্ধু থেকে শেখ হাসিনা সিঙ্গেল লাইফে চিন্তা নেই, ঝামেলা নেই : মোনালিসা স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার অঙ্গীকার-শপথ নিয়ে আ.লীগের সৃষ্টি ঈদের ১৩ দিনে পদ্মা সেতুতে টোল আদায় ৪২ কোটি টাকা আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তীতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক পরিষদ সিলেট মহানগর শাখার আংশিক কমিটি ঘোষণা, অরবিন্দু সভাপতি ও নন্দলাল সম্পাদক নয়াদিল্লি পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী, আজ শনিবার মোদির সঙ্গে একান্ত বৈঠক কুষ্টিয়ায় সাংবাদিকের উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে ছত্রিশ ঘন্টার আল্টিমেটাম

ফের এশিয়ার সেরা কাতার

প্রতিবেদকের নাম
  • প্রকাশিত : রবিবার, ফেব্রুয়ারি ১১, ২০২৪
  • 149 শেয়ার

স্পোর্টস ডেস্ক
এএফসি এশিয়ান কাপের ফাইনালে পেনাল্টি হলো তিনটি। সবগুলো পেনাল্টি পেলো কাতার। তিনটি পেনাল্টিই কাজে লাগালেন কাতারের আকরাম আফিফ। আর এতেই জর্ডানের রূপকথা থামিয়ে ৩-১ গোলের জয়ে টানা দ্বিতীয়বার এফসি এশিয়ান কাপে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে কাতার। পঞ্চম দল হিসেবে এশিয়ান কাপে একাধিক শিরোপা জয়ের রেকর্ড গড়লো কাতার।

শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) দোহার লুসাইল স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ফাইনালে মাঠে নামে কাতার ও জর্ডান। ম্যাচের শুরু থেকে আধিপত্য বিস্তার করে খেলতে থাকে কাতার। ম্যাচের ২০ মিনিটে প্রথম পেনাল্টি পায় কাতার। ডি বক্সে আফিফকে ফাউল করেন আব্দল্লাহ নাসিব। স্পট কিকে দলকে লিড এনে দেন আফিফ।

ম্যাচে পিছিয়ে পড়ে গোল শোধে মরিয়া হয়ে খেলতে থাকে জর্ডান। তবে গোল করতে ব্যর্থ হয় তারা। অন্যদিকে বেশ কিছু সু্যোগ নষ্ট করে কাতার। শেষ পর্যন্ত ১-০ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় স্বাগতিকরা।

বিরতি থেকে ফিরে ম্যাচের ৬৭ মিনিটে সমতায় ফেরে জর্ডান। মিডফিল্ডার এহসান হাদ্দাদের পাসে দুর্দান্ত এক গোলে সমতা ফেরান আল নাইমাত। তবে এই সমতা বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারেনি জর্ডান। ম্যাচের ৭৩ মিনিটে ফের পেনাল্টি পায় কাতার। সেখান থেকে নিজের দ্বিতীয় গোল করে ফের কাতারকে লিড এনে দেন আফিফ।

ম্যাচের নির্ধারিত সময়য় পর্যন্ত এই লিড ধরে রাখে কাতার। ম্যাচের ৯৫ মিনিটে ফের পেনাল্টি পায় কাতার। সেখান থেকে বল জালে জড়িয়ে নিজের হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন আফিফ। শেষ পর্যন্ত ৩-১ গোলের জয়ে শিরোপা জয়ের উৎসবে মাতে কাতার।

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ
© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০